কানাডায় বিক্ষোভকারীদের মিছিল

কানাডায় বিক্ষোভকারীদের মিছিল

ব্রিটিশ সাম্রাজ্যের দাসত্ব নির্মূলের স্মরণীয় দিন হিসেবে বর্ণবাদ বিরোধী বিক্ষোভকারীরা ভ্যানকুভারের রাস্তায় মুক্তি  দিবস উপলক্ষে মিছিল করেছে।

কানাডার ভ্যাঙ্কুভারের জ্যাক পুল পুলাজায় শুরু হওয়া এই ইভেন্টটি ব্ল্যাক লাইভস ম্যাটার আন্দোলনের পক্ষে সমর্থন ও ঐক্য প্রদর্শনের উদ্দেশ্যে করা হয়। ইভেন্টেটিতে  গ্রীষ্মের শুরুতে ভ্যানকুভার  জুড়ে প্রচুর সংখ্যক লোকের ভিড় হয় এবং  কানাডায় এবং এর বাইরেও ব্ল্যাক-অ্যান্টি-বর্ণবাদের প্রতি দৃষ্টি আকর্ষণ করা হয়।

ইভেন্টটির সহ-সংগঠক নোভা স্টিভেন্স বলেন,`আমরা আমাদের সংস্কৃতি এবং অবদানগুলো  বিশ্ববাসীর কাছে  প্রদর্শন করতে চাই।'

অনুষ্ঠানের সহ-সংগঠক শমিকা মিচেল বলেন, ‘আমাদের প্রত্যেককে একই পৃষ্ঠায় থাকা উচিত এবং যা অন্যকে আঘাত করে সেসব থেকে দূরে থাকতে হবে।’  

কানাডার স্থানীয় গণমাধ্যম সিবিসি নিউজ জানিয়েছে, করোনাভাইরাসের বিস্তার রোধে সতর্কতা অবলম্বন করতে  অনুষ্ঠানের আয়োজকরা অংশগ্রহণকারীদের মুখোশ পরা, শারীরিক দূরত্বের দিক নির্দেশনা মেনে চলা এবং মিছিলের পরের দুই সপ্তাহের জন্য সম্ভাব্য লক্ষণগুলো পর্যবেক্ষণ করার পরামর্শ দেন।

ইভেন্টটি সানসেট বিচ পার্কে সমাপ্ত হয়, যেখানে কৃষ্ণাঙ্গ শিল্পী এবং কৃষ্ণাঙ্গ মালিকানার ব্যবসায়ীরা কৃষ্ণাঙ্গ সংস্কৃতি উদযাপনের জন্য জড়ো হয়েছিলো।

উল্লেখ্য ‘দাসত্ব বিলোপ আইনটি’ ১৮৩৩ সালের ২৮ আগস্ট -এ রাজকীয় সম্মতি লাভ করে এবং আইনটি সাম্রাজ্য এবং এর উপনিবেশগুলো জুড়ে কার্যকর হয় ১৮৩৪ সালের ১ আগস্ট। সেই সময় থেকে, কানাডিয়ান সম্প্রদায়ের লোকেরা দাসত্বের বিলোপ উদযাপন উপলক্ষে বিভিন্ন অনুষ্ঠানের আয়োজন করছে।

ভ্যানকুভার সিটি আনুষ্ঠানিকভাবে ১ আগস্ট মুক্তি দিবস ঘোষণা করেছে। যেখানে মুক্তি দিবস শনিবার অবধি কেবল অন্টারিও তে সরকারিভাবে স্বীকৃতি পেয়েছিল।


কানাডার অন্যান্য প্রদেশগুলো জুড়ে বিস্তৃত স্বীকৃতির জন্য ক্রমবর্ধমান আন্দোলন চলছে।