করোনা সন্দেহে রংপুর মেডিকেলে ভর্তি চীনা নারী

করোনা সন্দেহে রংপুর মেডিকেলে ভর্তি চীনা নারী

নীলফামারীর সৈয়দপুর উপজেলার উত্তরা ইপিজেডে কর্মরত এক চীনা নাগরিককে গুরুতর অসুস্থ অবস্থায় রংপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে বলে জানা গেছে। রোববার (১৬ ফেব্রুয়ারি) দুপুরে হাসপাতালের করোনা ইউনিটের মেডিকেল বোর্ডের মুখপাত্র ডা. নারায়ণ চন্দ্র বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

হাসপাতাল সূত্রে জানা গেছে, সৈয়দপুর ইপিজেডে কর্মরত ওই চীনা নাগরিক গত ৪ ফেব্রুয়ারি চীন থেকে বিমানযোগে বাংলাদেশে আসেন। সেখান থেকে সরাসরি তার কর্মস্থল উত্তরা ইপিজেডে যান। গত দুই দিন ধরে সর্দি, জ্বর ও বুকে ব্যাথা অনুভব হলে স্থানীয় চিকিৎসকরা তার চিকিৎসা দেন। কিন্তু তার শারীরিক অবস্থার পরিবর্তন হয়নি। এর মধ্যে রোববার সকাল থেকে ওই ব্যক্তি গুরুতর অসুস্থ হয়ে পড়ায় তাকে দুপুরে রংপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়।

করোনা ইউনিটের মুখপাত্র ডা. নারায়ণ চন্দ্র জানান, ওই চীনা নাগরিকের চিকিৎসা চলছে। বিষয়টি ঢাকার স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের রোগতত্ত্ব, রোগ নিয়ন্ত্রণ ও গবেষণা ইনস্টিটিউটে (আইইসিডিআর) জানানো হয়েছে। সেখান থেকে বিশেষজ্ঞ দল এসে রক্ত ও কফসহ বিভিন্ন নমুনা সংগ্রহ করে ঢাকায় নিয়ে যাবেন।

পরীক্ষার নিরীক্ষার প্রতিবেদন না পাওয়া পর্যন্ত কোনো মন্তব্য করা যাবে না বলে জানান ওই চিকিৎসক।

এদিকে ওই চীনা নাগরিকের কর্মস্থল সৈয়দপুর ইপিজেডের প্রতিষ্ঠানটির ব্যবস্থাপনা পরিচালক বলেন, ওই ব্যক্তি সামান্য অসুস্থ ছিলেন। বর্তমানে তিনি চিকিৎসা নিয়ে কর্মস্থলে যোগ দিয়েছেন।

এমনকি রংপুর মেডিকেলে চীনা নাগরিকের ভর্তি হওয়ার কোনো খবর শোনেননি বলে জানান, ঢাকায় অবস্থানরত উত্তরা ইপিজেডের ব্যবস্থাপনা পরিচালক মো. এনামুল হক।

এর আগে অসুস্থ হয়ে পড়ায় চীন ফেরত শিক্ষার্থী তাশদীদ হোসেন ও তৌকির ইসলামকে সুস্থ করে ছাড়পত্র দেয়া হয়। আর উন্নত চিকিৎসার জন্য আল আমিনকে স্থানান্তরিত করা হয় ঢাকার কুর্মিটোলা জেনারেল হাসপাতালে।