এইচএসসি ও সমমানের পরীক্ষা স্থগিত

এইচএসসি ও সমমানের পরীক্ষা স্থগিত

সংক্রামক করোনাভাইরাসের প্রাদুর্ভাবের কারণে স্থগিত করা হলো এইচএসসি ও সমমানের বোর্ড পরীক্ষা। ১ এপ্রিল থেকে এই পরীক্ষা হওয়ার কথা ছিল। রবিবার দুপুরে শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের জনসংযোগ কর্মকর্তা মোহাম্মদ আবুল খায়ের ঢাকাটাইমসকে এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

এপ্রিল মাসের প্রথম দিকে পরবর্তী তারিখ জানানো হবে বলেও জানান এই কর্মকর্তা।

আগামী ১ এপ্রিল থেকে ৪ মে পর্যন্ত এইচএসসির তত্ত্বীয় এবং ৫ থেকে ১৩ মে’র মধ্যে সব ব্যবহারিক পরীক্ষা শেষ করার সূচি নির্ধারিত ছিল।

করোনাভাইরাসের সংকটময় পরিস্থিতিকে বিবেচনায় নিয়ে সবকটি শিক্ষা বোর্ডের চেয়ারম্যানদের সঙ্গে বৃহস্পতিবার বৈঠক করে আন্তঃশিক্ষা বোর্ড সমন্বয় সাব-কমিটি। ওই সভায় এবারের এইচএসসি পরীক্ষা পেছানোর বিষয়ে নীতিগত সিদ্ধান্ত হয়।

বৈঠকের পর শনিবার এইচএসসি পরীক্ষার পরীক্ষার্থীদের প্রবেশপত্র বিতরণ কার্যক্রম আগামী ২৮ মার্চ পর্যন্ত স্থগিত করছে শিক্ষা বোর্ডগুলো। পরীক্ষার্থীদের বাড়িতে অবস্থান করে পরীক্ষার প্রস্তুতি নিতে বলা হয়েছে।

সংক্রামক করোনাভাইরাস বাংলাদেশেও শনাক্ত হওয়ার পর পরীক্ষা সম্পন্ন হওয়া নিয়ে স্বাভাবিকভাবেই অনিশ্চয়তা দেখা দেয়। শিক্ষার্থী, অভিভাবক, শিক্ষকসহ সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তাদের মধ্যেও বিষয়টি নিয়ে উদ্বেগ প্রকাশ করেন। বাংলাদেশে এ পর্যন্ত ২৪ জন করোনাভাইরাসে আক্রান্ত বলে জানিয়েছে জাতীয় রোগতত্ত্ব, রোগ নির্ণয় ও গবেষণা প্রতিষ্ঠান- আইইডিসিআর। মারা গেছেন দুজন।

এর আগে করোনাভাইরাসের প্রকোপের কারণে গত ১৬ মার্চ দেশের সব শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান আগামী ৩১ মার্চ পর্যন্ত বন্ধ ঘোষণা করে সরকার। ওই দিন এইচএসসি পরীক্ষা নিয়ে শিক্ষামন্ত্রী দীপু মনি জানিয়েছিলেন, এই পরীক্ষা শুরুর আগে এ বিষয়ে সিদ্ধান্ত নেওয়া হবে।