আজ রাতে সুপারমুন দেখবে গোটা বিশ্ব

আজ রাতে সুপারমুন দেখবে গোটা বিশ্ব

আজ রোববার (৯ ফেব্রুয়ারি) সুপারমুন দেখতে পাবে গোটা বিশ্ব। রাতের আকাশ অপেক্ষা করছে আপনার জন্য। রাতের আকাশে আপনার জন্য অপেক্ষা করছে এক চমক! আজ রোববার এক বিরল ঘটনার সাক্ষী থাকবে পৃথিবীবাসী!

নাসার তথ্যমতে, আজ রাতের আকাশে দেখা যেতে পারে সবচেয়ে বড় চাঁদের। যা ‘সুপারমুন’ হিসাবে পরিচিত। স্বাভাবিক অবস্থানের তুলনায় রোববার রাতে অনেক কাছে দেখা যাবে চাঁদকে। ফলে এর আকারে অনেক বড় দেখাবে। স্বাভাবিক অবস্থা থেকে প্রায় ১৪ শতাংশ বড় দেখাবে চাঁদকে।

বেশ কিছু অনলাইন ওয়েবসাইটের লাইভ স্ট্রিমিং-এ সুপার মুন দেখতে পারেন। irtual Telescope Project 2.0- দেখা যাবে লাইভ।

সুপারমুন চাঁদের একটি দশা বা অবস্থা, চাঁদ যখন পৃথিবীর খুব কাছে অবস্থান করে তখন চাঁদকে পৃথিবী থেকে তুলনামূলকভাবে অনেক বড় আর উজ্জ্বল দেখায়। পূর্ণ গোলাকার চাঁদের এই অবস্থাকে সুপারমুন বলা হয়। সুপারমুনের কোন প্রচলিত বাংলা নেই। এটাকে অনেকে অতিকায় চাঁদ বলে থাকেন। পৃথিবী-চন্দ্র-সূর্য সিস্টেমে অতিকায় চাঁদের টেকনিক্যাল নাম হচ্ছে perigee-syzygy'।

চলতি বছরে এটাই প্রথম ও শেষ ‘সুপারমুন’। এর আগে শেষবার ‘সুপারমুন’ দেখা গিয়েছিল ২০১৬ সালের ১২ ডিসেম্বর। এরপর ২০২১ সালের ২৭ ফেব্রুয়ারিতে আবার সুপারমুন দেখা যেতে পারে যাবে।

পরবর্তী সুপারমুন কবে? মার্কিন মহাকাশ বিজ্ঞান গবেষণা সংস্থা 'নাসা'র তথ্য অনুযায়ী আগামী মাসেও দেখা যাবে আরও একটি সুপার মুন। আর তা ৯ মার্চ। তবে তার আগে মাঘ পুর্ণিমার রাতের সুপার মুন নিয়ে কৌতূহল রয়েছে জ্যোতিষবিদ্যা জগত থেকে জ্যোতির্বিজ্ঞনীদের মধ্যে। রাজনৈতিক খবর সমাজবাদী পার্টি বিএসপি বিজেডি আরজেডি ওয়াইএসআর কংগ্রেস টিআরএস জেডিএস ডিএমকে এআইএডিএমকে এআইএমআইএম বিজেপি তৃণমূল কংগ্রেস কংগ্রেস সিপিএম আম আদমি পার্টি শিবসেনা সমাজবাদী পার্টি বিএসপি বিজেডি আরজেডি ওয়াইএসআর কংগ্রেস টিআরএস জেডিএস ডিএমকে এআইএডিএমকে এআইএমআইএম বিজেপি তৃণমূল কংগ্রেস কংগ্রেস সিপিএম আম আদমি পার্টি শিবসেনা সমাজবাদী পার্টি বিএসপি বিজেডি আরজেডি PrevNext কেন নাম স্নো সুপার মুন? শোনা যায়, ইওরোপে ও উত্তর আমেরিকার বিভিন্ন জায়গায় প্রাচীন কালে চাঁদের অবস্থানের হিসাবে দিন কালের হিসাব করা হত। আর ফেব্রুয়ারি মাসে যে সুপার মুন দেখা যেত তার নাম করণ করা হয় 'স্নো সুপার মুন'। এমন ভাবে মরশুমের বিভিন্ন সময়ে বিভিন্ন পূর্ণিমায় ওঠা চাঁদের নাম ভিন্ন ধরনের হত।